বটবৃক্ষ কবিতা

বৃহাদাকার বৃক্ষ তুমি,
জমিনের মাঝে আছো যে
তুমি
সরু সরু ঝুরি বাতাসে দোলে
পরে মাটিতে প্রেরিত হলে।
স্তম্বমূলের মাটির
উপারাংশ,
পরিবর্তন হয় তবে বিটপে।

কচি পাতা তামাটে,
স্থান কাল পত্রভেদে
ভিন্ন একাধারে বৈশিষ্ট
তোমার
বটের পাতা হয় একান্তর
ডিম্বা কৃত মসৃন ও উজ্জ্বল।

পাংশুটে হলুদ হয় বটের কুড়ি,
তখনি পড়ে পাতার ঝুড়ি
বসন্ত,শৎরত আসে যখন।
নতুবা পাতা গজে তখন।
তিন ঋতুর পরিবর্তে,
ফল পেকে যাই মুহুর্তে।
গ্রীষ্ম,বর্ষা,শীত
তাহারিই নাম।

বহুগুনাগুন তোমার
বেচে আছো অনন্তকাল
পাঁচ-ছয় শত বছর।
এ যে তোমার আয়ুষকাল,
বটবৃক্ষ তোমারি নাম
বহুবর্ষ জীবী বেচে আছো
চিরকাল।

বটবৃক্ষ কবিতা

Next Post Previous Post